এখন থেকে নিজের গাছ কাটতেও নিতে হবে সরকারের অনুমতি !

‘বাংলাদেশ বন শিল্প উন্নয়ন করপোরেশন আইন ২০২১’- এর খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। আইন অনুযায়ী, নিজের বাগানের গাছ কাটতে সরকারের অনুমতি লাগবে।

সোমবার (৭ ফেব্রুয়ারি) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভা’র বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভা’র্চ্যুয়ালি যু’ক্ত হয়ে এ অনুমোদন দেন।

বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইস’লাম এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান।

সচিব বলেন, যারা সাধারণ বাগান করবে বা স্থায়ী যে গাছ লাগাবে; সেগুলোও তারা তাদের ইচ্ছামতো কাটতে পারবে না। পৃথিবীর প্রায় সব দেশেই এ নিয়ম আছে। সৌদি আরবে ‘ইউ ক্যান নট ইমেজিন’। আমা’র বাড়িতে একটি গাছ পড়ে গেছে, এটা আমি সিটি করপোরেশন বা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া কাটতে পারব না। এ নিয়ম ভা’রতেও আছে। এটাকে ভালো’ভাবে ইমপ্লিমেন্ট করতে বলা হয়েছে।

তিনি বলেন, এ আইনের মাধ্যমে সব বনাঞ্চলকে প্রটেকশন দেওয়া হয়েছে। এখানে স্থায়ী গাছের কথা বলা হয়েছে। লাউ গাছ কাটতে কোনো সমস্যা নেই। তবে এটাকে সহ’জ করে কর্তৃপক্ষকে অনুমতি দিতে বলা হয়েছে। কারণ, একটা মানুষ বিপদে পড়ল, তার গাছ ভেঙে গেল; এটা যদি সাত দিন পড়ে থাকে, অনুমতি নিতে যদি সময় লাগে তাহলে তো মুশকিল। তাই এটাকে সহ’জ করতে বলা হয়েছে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ফরেস্ট ইন্ডাস্ট্রি ডেভেলপমেন্ট অর্ডিন্যান্স ছিল, সেটা চলত ১৯৫৯-এর আওতায়। সেটাকে হালনাগাদ করে নেওয়া হয়েছিল আইন হিসেবে। এখানে অনেকগুলো বিষয় আছে, যেমন এটা একটা করপোরেশন হবে। করপোরেশনের একজন চেয়ারম্যান এবং পরিচালক থাকবে। একটি বোর্ড থাকবে, যারা এটাকে প্রশাসনিকভাবে দেখবেন। এর কাজ হবে করপোরেশনের অধীনে উৎপাদিত কাঠ বা কাঠের আসবাবপত্র আইনের অধীনে আনা।

তিনি বলেন, এটা নিয়ে ব্যাপক প্রচারণা করতে বলা হয়েছে। পরিবেশ মন্ত্রণালয় এই আইনগুলোর কমপালশনগুলো বাস্তবায়নের আগে প্রোমোশন ক্যাম্পেইন করে মানুষের দৃষ্টিতে আনতে কেবিনেট থেকে বলা হয়েছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*