‘ওষুধটি খাওয়ার ১০-১৫ মিনিটের মধ্যে রিঅ্যাকশন র’হস্যজনক

দুই শি’শুকে ওষুধ সেবনের ১০-১৫ মিনিটের মধ্যে রিঅ্যাকশন র’হস্যজনক বলে জানিয়েছেন ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের পরিচালক আকিব হোসেন।

তিনি বলেন, যে সিরাপটি নিয়ে অ’ভিযোগ উঠেছে তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। নমুনা পরীক্ষার জন্য এরই মধ্যে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। তা পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে।’

‘ওষুধ সেবনে’ দুই শি’শুর মৃ’ত্যুর ঘটনায় রোববার (১৩ মা’র্চ) দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজে’লার দুর্গাপুর ইউনিয়নের দুর্গাপুর গ্রামে ত’দন্তে গিয়ে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের পরিচালক বলেন, দুই শি’শুর পরিবারের সদস্যরা বলছে ওষুধ সেবনের পরই তারা অ’সুস্থ হয়ে পড়ে। বিষয়টি ঊর্ধ্বতনদের সঙ্গে আলোচনা করা হবে। ওষুধটিতে কী’ এমন উপাদান ছিল, যেটি খাওয়ার ১০-১৫ মিনিটের মধ্যে রিঅ্যাকশন করলো। বিষয়টি আসলে র’হস্যজনক। এ র’হস্য উদঘাটন করতে হয়তো সময় লাগবে।

‘ওষুধটি খাওয়ার ১০-১৫ মিনিটের মধ্যে রিঅ্যাকশন র’হস্যজনক’

গত ১০ মা’র্চ রাতে আশুগঞ্জ উপজে’লার দুর্গাপুর গ্রামে ‘নাপা সিরাপ খেয়ে’ ইয়াছিন খান (৭) ও মোরসালিন খান (৫) নামে দুই শি’শুর মৃ’ত্যু হয়। ঘটনার পর বিষয়টি ত’দন্ত শুরু করেছে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে রোববার দুপুরে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলতে দুই শি’শুর বাড়িতে যান ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের পরিচালকসহ পাঁচ কর্মক’র্তা। এরমধ্যে দুজন উপ-পরিচালক ও দুজন সহকারী পরিচালক এবং একজন পরিদর্শক আছেন। পরে দুই শি’শুর মা লিমা বেগম, চাচা উজ্জল মিয়া ও দাদি লিলুফা বেগমের সঙ্গে কথা বলে সাক্ষ্য নেন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*