ছেলের বউয়ের দিকে কুনজর, মাঝরাতে বের হতেই ভয়ংকর রূপ নেন শ্বশুর

সপ্তাহখানেক আগে ভালোবেসে বাড়িওয়ালার মেয়েকে বিয়ে করলেন ছেলে। এর মধ্যেই ছেলের বউয়ের প্রতি কুনজর পড়ে বাবার। খুঁজতে থাকেন সুযোগ। একদিন মাঝরাতে ঘরের বাইরে বের হতেই পুত্রবধূর সর্বনাশ করেন শ্বশুর।
ঘটনাটি নাটোরের গুরুদাসপুরের। এ ঘটনায় সোমবার রাত ১০টার দিকে থানায় মামলা করেন ভুক্তভোগী গৃহবধূর মা। তবে অভিযুক্ত শাহিন খন্দকার পলাতক থাকায় গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

এজাহারে উল্লেখ করা হয়, গুরুদাসপুরে এক বাড়িতে স্ত্রী ও এক ছেলে নিয়ে ভাড়া থাকতেন জয়পুরহাটের ইটভাটা শ্রমিক শাহিন খন্দকার। একপর্যায়ে বাড়ির মালিকের মেয়ের সঙ্গে তার ছেলের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। পরে দুই পরিবারের সিদ্ধান্তে সপ্তাহখানেক আগে তাদের বিয়ে দেওয়া হয়।

১৩ মার্চ রাত ১২টার দিকে ঘরের বাইরে বের হন পুত্রবধূ। এ সময় আগে থেকেই ওত পেতে থাকা শাহিন নিজের পুত্রবধূকে মুখ চেপে ধরে ধর্ষণ করেন। পরে ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করেন তিনি। তবে বিষয়টি জানাজানি হলে শাহিনের নামে ধর্ষণ মামলা করেন মেয়েটির মা।

গুরুদাসপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল মতিন বলেন, ঘটনার পরপরই গা ঢাকা দিয়েছেন শাহিন। তার পুত্রবধূকে শারীরিক পরীক্ষার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়েছে। আসামিকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*