দুই শি’শুর মৃ’ত্যুর অ’ভিযোগ, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নাপা সিরাপ বিক্রি বন্ধ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজে’লায় দুই সহোদরের মৃ’ত্যুর অ’ভিযোগ ওঠার পর নাপা সিরাপ বিক্রি সাময়িক সময়ের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেছে কেমিস্ট অ্যান্ড ড্রা’গিস্ট সমিতি। শুক্রবার (১১ মা’র্চ) রাতে জে’লা কেমিস্ট অ্যান্ড ড্রা’গিস্ট সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবু কাউছার নিজের ফেসবুক আইডিতে পোস্ট দিয়ে এ তথ্য জানান।

ফেসবুক পোস্টে তিনি লিখেছেন, পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়া জে’লার সকল কেমিস্টদেরকে নাপা সিরাপ বিক্রি না করার জন্য অনুরোধ করা হলো।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে জে’লা কেমিস্ট অ্যান্ড ড্রা’গিস্ট সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. আবু কাউছার জানান, দুই শি’শুর মৃ’ত্যুর ঘটনায় আপাতত নাপা সিরাপ বিক্রি বন্ধ রাখার জন্য বলা হয়েছে। কারণ নাপার বদলে অন্য ওষুধ কিনেও চলতে পারবে। যদি কোনো শি’শুর ক্ষতি হয়- সেই চিন্তা থেকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এর আগে গতকাল বৃহস্পতিবার (১০ মা’র্চ) রাতে আশুগঞ্জ উপজে’লার দুর্গাপুর গ্রামে ‘নাপা সিরাপ খেয়ে’ ইয়াছিন খান (০৭) ও মোরসালিন খান (০৫) নামে দুই শি’শুর মৃ’ত্যু হয়েছে বলে অ’ভিযোগ তোলেন স্বজনরা। মৃ’তরা দুর্গাপুর গ্রামের ইটভাটা শ্রমিক সুজন খানের ছে’লে।

ওই দুই শি’শুর মা লিমা বেগম সাংবাদিকদের জানান, ইয়াছিন ও মোরসালিনের জ্বর ছিল। বৃহস্পতিবার বিকেলে বাড়ির পাশে মা ফার্মেসি থেকে নাপা সিরাপ এনে তাদেরকে খাওয়ানো হয়। সিরাপ খাওয়ার পরই দুইজন বমি করতে থাকে। অবস্থার অবনতি হলে প্রথমে তাদেরকে আশুগঞ্জ উপজে’লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং এরপর জে’লা সদর হাসাপাতা’লে নেওয়া হয়। হাসপাতা’লে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বাড়িতে নেওয়ার পথে রাত ৯টার দিকে ইয়াছিন এবং বাড়িতে আনার পর রাত সাড়ে ১০টায় মোরসালিনের মৃ’ত্যু হয়।

আশুগঞ্জ উপজে’লা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মক’র্তা নুপুর সাহা জানান, ওই দুই শি’শুকে অচেতন অবস্থায় হাসপাতা’লে আনা হয়েছিল। বিষক্রিয়া ছিল হয়তো। পরে স্টমাক ওয়াশের জন্য তাদের জে’লা সদর হাসপাতা’লে পাঠানো হয়। কারণ উপজে’লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে শি’শুদের স্টমাক ওয়াশ করার সুবিধা নেই।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*