নাপা সিরাপ নয়, মায়ের পর’কী’য়া প্রে’মেই প্রা’ণ যায় সেই দুই শি’শুর!

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজে’লায় নাপা সিরাপ খেয়ে একই পরিবারের দুই শি’শুর মৃ’ত্যুর ঘটনাটি পরিক’ল্পিত হ’ত্যাকা’ণ্ড বলে পু’লিশ জানিয়েছে। এ ঘটনায় শি’শুর মা লিমা বেগমকে (৪০) গ্রে’প্তার করেছে পু’লিশ। বৃহস্পতিবার (১৭ মা’র্চ) ভোরে তাকে গ্রে’প্তার করা হয়। এরই মধ্যে গ্রে’প্তারকৃত ব্যক্তিকে জবানব’ন্দির জন্য কোর্টে পাঠিয়েছে পু’লিশ। এ ঘটনায় নি’হত দুই শি’শুর বাবা ইসমাঈল হোসেন বাদী হয়ে লিমা বেগম ও তার পর’কী’য়া প্রে’মিক সফিউল্লার বি’রুদ্ধে হ’ত্যা মা’মলা দায়ের করেছেন।

অ’তিরিক্ত পু’লিশ সুপার মোল্লা মোহাম্ম’দ শাহীন জানান, লিমা আশুগঞ্জের একটি চালকলে কাজ করেন। আর তার স্বামী কাজ করেন ইটভাটায়। চালকলে কাজ করার সুবাদে আরেক শ্রমিক সফিউল্লার সঙ্গে লিমা’র পরিচয় হয়। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে প্রে’মের স’ম্পর্ক গড়ে উঠে। তারা বিয়ে করারও সিদ্ধান্ত নেয়।

তিনি আরও জানান, পূর্বপরিকল্পনার অংশ হিসেবে মিষ্টির সঙ্গে বিষ মিশিয়ে দুই শি’শু ইয়াছিন ও মোরসালিনকে খাইয়ে হ’ত্যা করে মা লিমা বেগম। মৃ’ত্যুর ঘটনাটি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য নাপা সিরাপের রিঅ্যাকশন হয়েছে বলে প্রচার করে। কিন্তু লিমা’র আচরণে প্রথমেই পু’লিশের স’ন্দেহ হয়। অধিকতর জিজ্ঞাসায় সে হ’ত্যাকা’ণ্ডের কথা স্বীকার করেছে। এ ঘটনায় লিমা’র প্রে’মিক সফিউল্লাকে গ্রে’প্তারের চেষ্টা চলছে।

উল্লেখ্য, গত ১০ মা’র্চ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজে’লার দুর্গাপুর ইউনিয়নের দুর্গাপুর গ্রামের ইসমাঈল হোসেনের দুই ছে’লে ইয়াছিন ও মোরসালিন নাপা সিরাপ খেয়ে মা’রা যায় বলে অ’ভিযোগ তোলেন স্বজনরা

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*