নারীদের জয়ে যা বললেন সাকিব-তামিমরা

৯ রানের অবিশ্বাস্য এক জয়। বাংলাদেশ জাতীয় নারী ক্রিকেট দলের এই জয় প্রশংসারই প্রাপ্য। পাকিস্তান নারী দলের বিরুদ্ধে ঐতিহাসিক এই জয়ে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের খেলোয়ারদের প্রশংসা করে অভিনন্দন জানাচ্ছেন পুরুষ ক্রিকেট দলের সাবেক ও বর্তমান সদস্যরা।

মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা, তামিম ইকবাল, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিমসহ অন্যরাও ফসবুক, টুইটারে অভিনন্দন জানাচ্ছেন।

ফেসবুকে সাকিব লিখেছেন, প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের মঞ্চে নিজেদের প্রথম জয় তুলে নিলো বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল। পাকিস্তানের বিপক্ষে দুর্দান্ত এই জয়ে নারী ক্রিকেট দলকে জানাই অসংখ্য শুভেচ্ছা।

ওয়ানডে দলের অধিনায়ক তামিম ইকবাল লিখেছেন, পাকিস্তানকে হারিয়ে বিশ্বকাপের প্রথম জয়ে নারী টাইগ্রেসদের জন্য থাকলো অভিনন্দন। সাবাশ বাংলাদেশ।

এদিকে ঐতিহাসিক এই জয়ে টুইটারে বাঘিনীদের প্রশংসার ঝড় বয়ে যাচ্ছে। ভারতের সাবেক ক্রিকেটার ও দেশটির নারী দলের সাবেক কোচ ওরকেরি রমান এক টুইট বার্তায় বলেন, ‘অভিনন্দন বাংলাদেশ টাইগার্স, নারী বিশ্বকাপে আপনাদের প্রথম জয়ের জন্য।’ এছাড়া অভিনন্দন জানিয়েছেন, ভারতীয় ক্রিকেট বিশ্লেষক কাউসথাব গুদিপাতিও।

আজ টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন পাকিস্তানের অধিনায়ক বিসমাহ মারুফ। ব্যাটিং করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ২৩৪ রানের সংগ্রহ দাঁড় করায় বাংলাদেশ। যা ওয়ানডেতে বাংলাদেশ নারী দলের এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ। সর্বোচ্চ ৭১ রান করেছেন ওয়ানডাউনে নামা ফারজানা হক। এছাড়া অধিনায়ক নিগার সুলতানা ৪৬, শারমিন আক্তার ৪৪ ও শামিমা সুলতানা ১৭ ও রুমানা আহমেদ ১৬ রান করেন।

পাক বোলারদের মধ্যে নাসরা সান্ধু ৩টি এবং ফাতিমা সানা, নিধা দার ও ওমাইমা সোহাইল একটি করে উইকেট নেন। জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে দুর্দান্ত ব্যাটিং করেন পাকিস্তানের দুই ওপেনার নাহিদা খান ও সিদরা আমিন। তাদের দুজনের জুটি থেকে এসেছে ৯১ রান। আউট হওয়ার আগে ৪৩ রান করেন নাহিদা। অপর ওপেনার ১০৪ রান করেছেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ম্যাচ জিতিয়ে মাঠ ছাড়তে পারেননি। রানআউটের শিকার হয়েছেন। পরে বিসমাহ মারুফ করেন ৩১ রান। কিন্তু এটি জয়ের জন্য যথেষ্ট ছিল না।

পাকিস্তানের দ্বিতীয় উইকেট পড়ে ১৫৫ রানের সময় এবং তৃতীয় উইকেটের পতন ঘটে ১৮৩ রানে। এর পরই হঠাৎ ধস নামে তাদের ইনিংসে। ঘুরে দাঁড়ায় বাংলাদেশি বোলাররা। একে একে তাদের ৯টি উইকেট তুলে নেয়। সর্বোচ্চ ৩ উইকেট শিকার করেছেন ফাহিমা খাতুন। এছাড়া রুমানা আহমেদ ২টি এবং জাহানারা আলম ও সালমা খাতুন একটি করে উইকেট নেন। বাকি দুটি রানআউট।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*