নির্বাচনে জিতে যা বললেন জায়েদ খান

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে তৃতীয়বারের মতো সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়েছেন চিত্রনায়ক জায়েদ খান। নির্বাচনে জায়েদ খান পেয়েছেন ১৭৬ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী নিপুণ পেয়েছেন ১৬৩ ভোট। ১৩ ভোটের ব্যবধানে টানা তৃতীয়বারের মতো নির্বাচিত হলেন জায়েদ।

ফল ঘোষণার পরই তাৎক্ষণিক এক সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন জায়েদ খান। অভিনন্দন জানান নবনির্বাচিতদের। বলেছেন, মিস করবো আমার প্যানেলের সভাপতি প্রার্থী মিশা ভাইকে। তার সাথে দুই টার্মে চার বছর কাজ করেছি। আমাদের আন্ডারস্ট্যান্ডিং খুব ভালো ছিল।

সাম্প্রতিক সময়ে তার বিরুদ্ধে নানা ধরনের অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্র করা হয়েছে উল্লেখ করে জায়েদ খান বলেন, দয়া করে এভাবে অপপ্রচার গুঞ্জন ছড়িয়ে কাউকে এভাবে হেয় করবেন না। আমাকে নিয়ে যা ছড়ানো হয়েছে সেটি একদমই অপ্রত্যাশিত ও অন্যায়। আমি যদি কাজ না করতাম তাহলে শিল্পীরা ভোট দিয়ে টানা তৃতীয়বারের মতো নির্বাচিত করতেন না।

ইলিয়াস কাঞ্চনের সাথে নতুন জুটি প্রসঙ্গে জায়েদ খান বলেন, মিশা ভাইয়ের সাথে একটা সেটআপ ছিল। সেটা খুব মিস করবো। কাঞ্চন ভাই উপদেষ্টা হিসেবে আমাদের সাথে কাজ করেছেন। তিনি আগে সাধারণ সম্পাদকও ছিলেন। তার অভিজ্ঞতা আছে। আশা করি একসাথে শিল্পীদের স্বার্থে কাজ করতে পারবো। ডিপজল ভাই, রুবেল ভাইসহ আমাদের প্যানেলের সিনিয়ররা নির্বাচিত হয়েছেন। এতে কাজ করা সুবিধে হবে।

প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী নিপুণ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, তার জন্য শুভকামনা। সে প্রথমবার নির্বাচন করে ভালো করেছে। আশা করি কাজের ক্ষেত্রে তার সহযোগিতা পাবো। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাকে নিয়ে নানা অপপ্রচার নিয়ে বারবার দৃষ্টি আকর্ষণ করে শিল্পী সমিতির এ নেতা বলেন, আমার মা মারা গেছেন বেশিদিন হয়নি। এমনিতেই কঠিন সময় পার করছি।

এরমধ্যে আমার সাথে যা হয়েছে সেগুলো অন্যায় হয়েছে। আমিও মানুষ। ভুল-ত্রুটি হলে গঠনমূলক সমালোচনা করে শুধরে দেবেন। কিন্তু এভাবে ব্যক্তি আক্রমণ অন্যায়। সেটি থেকে সবাইকে বিরত থাকার অনুরোধ করছি।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*