প্রধানমন্ত্রীকেও অনুমতি নিয়ে ঢুকতে হবে, মন্তব্য করে পদ হারালেন চেয়ারম্যান

দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য পদ থেকে বারদী ইউনিয়ন পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান বাবুলকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) জেলা আওয়ামী লীগ তাঁকে পদ থেকে অপসারণ করে।

নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই বলেন, গত মঙ্গলবার রাতে মাহবুবুর রহমান বাবুল বারদী ইউনিয়নের পাইকপাড়া গ্রামের একটি ওয়াজ মাহফিলে বক্তব্য দেওয়ার সময় বলেন, ‘আমি বারদী ইউনিয়নের ম্যাজিস্ট্রেট, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যদি কখনো বারদী আসেন, তাঁকেও আমার অনুমতি নিয়ে এ এলাকায় আসতে হবে।

এখন থেকে প্রশাসনকে অবশ্যই আমার পক্ষে কাজ করতে হবে। কারও ফোনে প্রশাসন আসবে না। আমি যদি বলি সুইচ অফ, তাহলে সব বন্ধ হয়ে যাবে। এখন থেকে হাটবাজারগুলোতে কেউ সমস্যা করলে তাদের হাত-পা ভেঙে আমাকে খবর দেবেন। হাত পা না ভাঙলে আমি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে তালা ঝুলিয়ে দেব।’

আব্দুল হাই আরও বলেন, ‘মাহবুবুর রহমানের এসব বক্তব্য এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। এসব বক্তব্যের কারণে মাহবুবুর রহমানকে দল থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।’ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই বলেন, ‘মাহবুবুর রহমানকে স্থায়ীভাবে দল থেকে বহিষ্কার করার জন্য কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বরাবর চিঠি পাঠানো হয়েছে।’

তবে সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সামছুল ইসলাম ভূঁইয়া জানান, আগামী শনিবার উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক কমিটির জরুরি সভা ডাকা হয়েছে। সভায় মাহবুবুর রহমান বাবুলকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করার জন্য কেন্দ্রে প্রস্তাব পাঠানো হবে।

বারদী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান বাবুল বলেন, ‘আমি এখন পর্যন্ত অব্যাহতির চিঠি পাইনি। চিঠি পেলে জবাব দেওয়া হবে। আমার বক্তব্য বিকৃত করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উপস্থাপন করা হয়েছে।’

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*