বিয়ের অনুষ্ঠানে কুয়ায় পড়ে ১৩ জনের মৃত্যু

বিয়ের অনুষ্ঠানে দুর্ঘটনাবশত কুয়ায় পড়ে ভারতের উত্তর প্রদেশে ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার রাতে রাজ্যের কুশিনগর জেলার এক গ্রামে এই ঘটনায় মারা যাওয়াদের মধ্যে সাত নারী ও ছয় মেয়ে শিশু রয়েছে। জানা গেছে, নিহত নারীদের বয়স ২০ থেকে ৩৫ বছর। এছাড়া এক বছরের এক শিশুরও মৃত্যু হয়েছে।

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, দুর্ঘটনার শিকার নারী ও শিশুরা বিয়ের অনুষ্ঠানে পুরনো কুয়ার ওপর নির্মিত একটি স্লাবের ওপর বসে ছিলেন। ভারি ওজনের কারণে স্লাবটি ভেঙে পড়ে আর ওপরে বসে থাকারা কুয়ায় পড়ে যায়। পরে তাদের দ্রুত হাসপাতালে নেওয়া হলে ১৩ জনকে মৃত ঘোষণা করা হয়। এই ঘটনায় আরও দুইজন গুরুতর আহত হয়েছেন।

হাসপাতালের ভিডিওতে দেখা গেছে, বিয়ের সাজে সজ্জিত স্বজনেরা প্রিয়জনকে হারিয়ে বিলাপ করছেন। জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এস রাজলিঙ্গম সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, ‘আমরা দুর্ঘটনাবশত কুয়ায় পড়ে ১১ জনের মারা যাওয়ার এবং আরও দুই জন গুরুতর আহত হওয়ার তথ্য পেয়েছি। এক বিয়ের অনুষ্ঠানের সময় এই ঘটনা ঘটেছে। ওই অনুষ্ঠানে কয়েক জন একটি কুপের স্লাবের ওপর বসে ছিল আর ভারি ওজনের কারণে স্লাবটি ভেঙে পড়ে।’

পরে বার্তা সংস্থা এএনআইকে গোরখপুর জোনের এডিজি অখিল কুমার জানান, মৃতের সংখ্যা ১৩ জনে পৌঁছেছে। তিনি বলেন, ‘গত রাত সাড়ে আটটার দিকে কুশিনগরের নেবুয়া নওরঙ্গিয়া গ্রামে বিয়ের অনুষ্ঠানে ঘটনাটি ঘটে।’

জেলা ম্যাজিস্ট্রেট জানান, নিহত প্রত্যেকের পরিবারকে চার লাখ রুপি করে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে। এই ঘটনায় নিহতদের প্রতি শোক প্রকাশ করে আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথও এই ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন।

সূত্র: এনডিটিভি

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*