যে ৭ খাবার দীর্ঘ দিন ভালো রাখতে ফ্রিজে রাখা উচিত নয়!

কর্মব্যস্ততার কারণে অনেকেই নিয়ম করে বাজার যাওয়ার সময় পান না। ছুটির দিন ছাড়া বাজার করা উপায়ও নেই। সপ্তাহান্তে বাজার গিয়ে সব জিনিস একেবারে কিনে আনলে নিশ্চিন্ত। তার পর সেগুলি ফ্রিজে সাজিয়ে রাখতে পারলেই চিন্তা মুক্ত।

প্রথম এক-দু’দিন ফ্রিজে রাখা খাবার স্বাভাবিক মনে হলেও কিছু দিন পর থেকে বদল ঘটতে থাকে। বদলে যেতে থাকে খাবারের স্বাদ। সেই সঙ্গে গুণমানও। তবে সব খাবারের ক্ষেত্রে এমনটি হয় না। কয়েকটি খাবার ফ্রিজে রাখলে লাভের চেয়ে ক্ষতির আশঙ্কা বেশি থাকে।

কোন খাবারগুলি ফ্রিজে তুলে রাখবেন না?

কলা

কলা সব সময় ঘরের স্বাভাবিক তাপমাত্রায় রাখা উচিত। ঘরের তাপমাত্রায় কলা কাঁচা থাকলেও তা পেকে যাবে। কোনও ক্ষয়ও হবে না।

পাউরুটি

বেশি দিন পাউরুটি ভালো রাখতে অনেকেই ফ্রিজে রেখে দেন। এতে পাউরুটি আরও বেশি করে শুকিয়ে যায়। এর গুণমানও চলে যায়। তাই পাউরুটি ফ্রিজে না রাখাই ভালো।

মধু

দীর্ঘ দিন মধু সংরক্ষণ করতে অনেকেই তা ফ্রিজে রেখে দেন। মধুর স্বাদ ও গুণাগুণ এর ফলে নষ্ট হতে থাকে। তাই ফ্রিজে না রেখে বরং একটি অন্ধকার কোনও জায়গায় রাখতে পারেন। মধু অনেক দিন পর্যন্ত ভালো থাকবে।

তরমুজ

বাইরের গরম থেকে ফিরে ফ্রিজে রাখা ঠান্ডা তরমুজ খেলে প্রাণটা যেন জুড়িয়ে যায়। তরমুজ কেটে ফ্রিজে রাখা একে বারেই উচিত নয়। তরমুজের সব উপকারী গুণ এতে নষ্ট হয়ে যায়। তরমুজ টাটকা খাওয়া ভালো।

আলু

ফ্রিজে না রেখে আলু সব সময় ঝুড়িতে করে খোলা জায়গায় রাখা উচিত। ফ্রিজের তাপমাত্রা আলুতে থাকা কার্বোহাইড্রেটকে নষ্ট করে দেয়। রান্না করার পর আলুর স্বাদ এতে বদলে যেতে পারে।

পেঁয়াজ

পেঁয়াজ কেটে ফ্রিজে রাখলে ফ্রিজের ঠান্ডা তাপমাত্রা ও উচ্চ আর্দ্রতায় পেঁয়াজ থাকা সব গুণাবলী নষ্ট হয়ে যায়।

টমেটো

টমোটো খুব তাড়াতাড়ি পচে যায়। তাই অনেক দিন ভালো রাখতে টমেটো অনেকেই ফ্রিজে তুলে রাখেন। ফ্রিজে থাকা টমেটো তার সতেজতা হারায়। শুকিয়ে যায়। স্বাদও নষ্ট হয়। ফ্রিজে না রেখে বরং ভেজা কাপড়ে মুড়িয়ে রাখলেও অনেক দিন পর্যন্ত ভাল থাকবে টমেটো।

সূত্র: আনন্দবাজার

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*